Breaking News : ভারতে টিকটক সহ ৫৯ টি চাইনা অ্যাপ ব্যান করলো কেন্দ্র সরকার

১৫ই জুন রাতে ভারতের সেনাদের ওপর হামলা চালিয়েছিল চিনের সেনা। কাঁটাতার জড়ানো লাঠি, পাথর দিয়ে অতর্কিতে ভারতীয় জওয়ানদের ওপর করা হামলায় প্রাণ হারিয়েছিল ২০ জন ভারতীয় জওয়ান। ভারতও তার জবাব দিয়েছে কিন্তু এতজন জওয়ানের মৃত্যুকে মোটেই হালকা ভাবে নেয়নি ভারতের মানুষ সহ প্রশাসন কেউই। বারবার চিনা দ্রব্য বয়কট করার ডাক উঠেছে দেশজুড়ে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি নিজে জানিয়েছিলেন সেনাদের এই আত্মত্যাগ ভুলবেনা দেশ

এইবার প্রত্যঘাত হানলো ভারত। চিনা দ্রব্য হয়তো বয়কট করা সম্ভব নয় কিন্তু চিনের একাধিক অ্যাপ ভারতে তাদের ব্যবসা চালাচ্ছে রমরমিয়ে। আর এই তালিকায় সবার প্রথমে রয়েছে ‘টিকটক’। বহুদিন ধরেই এই এপ্লিকেশনটি নিয়ে বিতর্ক উঠেছে গোটা দেশজুড়ে। বহু মানুষ টিকটক থেকে নিজেদের সরিয়ে নেওয়ার সাথে সাথে বাকিদেরকেও আনইনস্টল করার পরামর্শ দিয়েছেন। এবার মোদি সরকার সরাসরি নিষিদ্ধ করে দিল চিনের ৫৯ টি এপ্লিকেশন।

জেন্ডার, শেয়ার ইট, টিকটক, ইউসি ব্রাউজারের মতো প্রয়োজনীয় এপ্লিকেশন রয়েছে এই লিস্টে। বহুদিন ধরেই ইউজারদের ব্যক্তিগত তথ্য চুরির অভিযোগে আসছিল এই এপ্লিকেশনগুলি থেকে। এবার সরাসরি নিষিদ্ধ করে দেওয়ার ফলে চিনকে কড়া জবাব দেওয়ার প্রাথমিক ধাপ সম্পন্ন করা হল বলে মনে করছেন অনেকেই।

ভারতের ঘুম হারাম, এবার ভারত মহাসাগরে স্থায়ী ঘাঁটি গড়ছে ইরান

ইরানের ইসলামি বি’প্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি ভারত মহাসাগরে স্থা’য়ী ঘাঁ’টি

গড়ার প’রিকল্পনা হাতে নিয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন মহাসাগরের ইরানের সামরিক বাহিনীর

উ’পস্থিতি নি’শ্চিত করার জন্য সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লা আলি খামেনির নির্দেশনা অনুযায়ী এ

পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে আইআরজিসি। ইরানের বার্তা সংস্থা ফার্স নিউজকে আজ সোমবার

বন্দর আব্বাস থেকে আইআরজিসি’র নৌবাহিনীর কমান্ডার রিয়ার অ্যাডমিরাল আলি রেজা

তাংসিরি জানান, সর্বোচ্চ নেতা আইআরজিসি-কে ইরানের পানিসীমা থেকে দূরবর্তী

সাগর-ম’হাসাগরে উপস্থিতি নি’শ্চিত করার দায়িত্ব দিয়েছেন।এরই অংশ হিসেবে ভারত

মহাসাগরে একটি স্থা’য়ী ঘাঁটি করা হবে।ইরানের এ সেনা কমান্ডার জানান, ভারত মহাসাগরে

ঘাঁটি গড়ার ক্ষেত্রে আইআরজিসি তার নি’জস্ব স’ক্ষমতা ব্যবহার করবে। তিনি বলেন,

আইআরজিসি তাদের স্থা’য়ী ঘাঁ’টি করার পরিকল্পনা এগিয়ে নিচ্ছে এবং চলতি বছরের শেষ

নাগাদ ঘাঁ’টিটি চালু করা হবে। ২০২১ সালের মার্চ মাসে চলতি ফার্সি বছর শেষ হবে।

নাগাদ ঘাঁ’টিটি চালু করা হবে। ২০২১ সালের মার্চ মাসে চলতি ফার্সি বছর শেষ হবে।

আইআরজিসি তাদের স্থা’য়ী ঘাঁ’টি করার পরিকল্পনা এগিয়ে নিচ্ছে এবং চলতি বছরের শেষ

নাগাদ ঘাঁ’টিটি চালু করা হবে। ২০২১ সালের মার্চ মাসে চলতি ফার্সি বছর শেষ হবে।

নাগাদ ঘাঁ’টিটি চালু করা হবে। ২০২১ সালের মার্চ মাসে চলতি ফার্সি বছর শেষ হবে।

Blog at WordPress.com.

Up ↑